চকরিয়ায় সালাহ উদ্দিন আহমেদসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

0

ভারতের কারাগারে বন্দি থাকা সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী সালাহ উদ্দিন আহমেদসহ বিএনপির আরো ১৬ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) কক্সবাজার জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক তৌফিক আজিজ ২০১১ সালে চকরিয়া থানায় দায়েরকৃত একটি মামলায় এ পরোয়ানা জারির আদেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি ওই মামলায় অভিযুক্ত ২২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রও গঠন করা হয়েছে।

জানা গেছে, বিগত ২০১১ সালের ৪ জুন চকরিয়া থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ইয়াছিন বাদী হয়ে নাশকতার অভিযোগে এ মামলা দায়ের করেছিলেন। কক্সবাজারের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের কর্মকর্তা শাহজাহান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। যাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তারা হলেন- বিএনপি নেতা আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন আহমেদ, মো. মনজুর আলম, মো. সেলিম উল্লাহ, সাইফুল ইসলাম, মৌলানা রফিক, আজিজুল হক, হেফাজতুর রহমান টিপু, এহছানুল কাদের সাগর, ইমরুল হাসান, মো. জাহাঙ্গীর, জিয়াবুল কবির, জসীম উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, মো. ইব্রাহিম খলিল, জয়নাল ও আলী হোসেন। এই ১৬ জনসহ রুবেল বড়ুয়া, নুরুল আমিন, আবদুর রহিম, জালাল উদ্দিন ও মো. বাবুল ছাড়া আরও একজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

চকরিয়া থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, বিগত ২০১১ সালের ৩ জুন ফাসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী রাজারবিলের মালেক ড্রাইভারের বাড়িতে উঠান বৈঠক শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় রাজারবিল নয়াপাড়ার কাছাকাছি পৌঁছালে সালাহ উদ্দিন আহমদের নেতৃত্বে একই ইউপির বিএনপি সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আজিজুল হকের সমর্থনে গিয়াস উদ্দিন ও তার লোকদের ওপর হামলা করা হয়। এতে তিনজন পুলিশ আহত হন। এ ঘটনায় পরে চকরিয়া থানায় মামলা হয়।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...