বিশ্বে উন্নয়নের মডেল হবে দক্ষিণ এশিয়া

আন্তর্জাতিক কনফারেন্স উদ্বোধনকালে চবি উপাচার্য

0

সারাবিশ্বের উন্নয়নের মডেল হবে দক্ষিণ এশিয়া। কারণ টেকসই উন্নয়নের যাবতীয় মূলধন এ অঞ্চলে রয়েছে।

রোববার (৭ অক্টোবর) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় অনুষদ অডিটোরিয়ামে ‘রি-থিংকিং ডেভেলপমেন্ট ইন সাউথ এশিয়া-২০১৮’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক

কনফারেন্সের উদ্বোধনকালে উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী এসব কথা বলেছেন।

চবি সমাজবিজ্ঞান গবেষণা ইনস্টিটিউট এ কনফারেন্সের আয়োজন করে।

চবি উপাচার্য বলেন, দক্ষিণ এশিয়া বৈচিত্র্যময় একটি অঞ্চল। সারা পৃথিবীর কাছে ভৌগলিক কারণে এ অঞ্চলের গুরুত্ব অনেক। বিশ্ববাণিজ্যের একটি বড় অংশ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এ অঞ্চলে। তাই এ অঞ্চলের উন্নয়ন গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে যে পাঁচটি মূলধন প্রয়োজন

সেগুলো এ অঞ্চলে বিদ্যমান। আমাদের রয়েছে দক্ষ জনশক্তি, ভূমি, খনিজসম্পদ। এখন শুধু দরকার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সুন্দর সমন্বয়। এ সমন্বয় শতভাগ হয়ে গেলে টেকসই উন্নয়নের মডেল হবে দক্ষিণ এশিয়া।

কনফারেন্সে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমাজবিজ্ঞান গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। কনফারেন্সে প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান। বিশেষ অতিথি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান।
সম্মানিত অতিথি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার এবং মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’র নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম।

কনফারেন্সে আমেরিকা, চীন, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, নেপালসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫০ জন শিক্ষক ও গবেষক অংশ নিচ্ছেন। এ কনফারেন্সে ৯০টি প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে। কনফারেন্স আয়োজনে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন।

জয়নিউজ/ফরহান অভি/মনির ফয়সাল/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...