অস্থির বাজারে নিম্ন-মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাস

0

রমজানের সময়ে লাগামহীনভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে সবজিসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্যের দাম। গত দুই দিন ধরে নগরের চলছে কঠোর লকডাউন। একদিকে করোনার প্রকোপ অন্যদিকে বাজারে লাগামহীন বৃদ্ধি দুইয়ে মিলে নিম্নবিত্ত-মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাস অবস্থা।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) নগরের রিয়াজউদ্দিন বাজার. কাজীর দেউড়ি বাজার ও চকবাজার ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া যায়।

সবজির মধ্যে প্রতিকেজি বেগুনের দাম  ৮০ থেকে ১০০ টাকা, আলু ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, গাজর ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, শসা ৫০ থেকে ৬০ টাকা, টমেটো ৩০ টাকা, পেপে ৩০  টাকা, তিতা করলা ৭০ থেকে ৭৫ টাকা, খিরা ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া পেঁয়াজ ৩৫-৪০ টাকায়, রসুনের কেজি ৮০ থেকে ১২০ টাকা, আদা ৮০ থেকে ১০০ টাকা। হলুদ ১৮০ টাকা থেকে ২৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১৩৫ টাকা। প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়।

মাংসের বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায়, লেয়ার ২৪০ টাকায় এবং সোনালী মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৩৪০ টাকায়। প্রতিকেজি গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকা, খাসির মাংস ৮০০ টাকায়।

লকডা্উনের সময়ে সরবরাহ মাছের বেশকিছুটা কমেছে।  মাছের বাজারে প্রতিকেজি তেলাপিয়া ১৫০ টাকা, কাতাল ২০০ থেকে ২৩০ টাকায়, রুই ১৬০ টাকা, চিংড়ি ৪৫০ টাকায়, রূপচাঁদা ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

জয়নিউজ/হিমেল/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...