এত স্পর্ধা তাদের?

0

তারা বেপরোয়া, আইন মানতে নারাজ। অপরাধের দাগ তাদের অনেকদিনের। তাই বলে এত স্পর্ধা তাদের হয় কি করে? আসামি আটকে আসা পুলিশকেই পেটানো! তাও ঘরের গৃহিনীদের সাথে নিয়েই!

ঘটনা বোয়ালখালীর। আদালতের পরোয়ানাভুক্ত আসামি ধরতে গিয়ে আহত হয়েছেন ৫ পুলিশ ও এক আনসার সদস্য।

রোববার (৭ অক্টোবর) রাত ১টার দিকে পৌর সদরের ৫নং ওয়ার্ডের মুফতি পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে বোয়ালখালী থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

আহতরা হলেন বোয়ালখালী থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক মনিতোষ চাকমা, আনিছুজ্জামান, কনস্টেবল প্রান্ত দেব নাথ, আবু নোমান, রাজীব মজুমদার ও আনসার সদস্য মো. শাহজাহান।

গুরুতর আহত মনিতোষ চাকমাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। অন্যান্যদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বোয়ালখালী থানার উপ-পরিদর্শক তাজ উদ্দিন জানান, পৌরসভার মুফতি পাড়ার বাসিন্দা মৃত আমির আহম্মদের ছেলে হাবিব উল্লাহ সোহেল ও মো. আরিফ উল্লাহ তসলিমের বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারী পরোয়ানা ছিল। তারা বাড়িতে আছে খবর পেয়ে অভিযানে গেলে আসামিসহ বাড়ির সদস্যরা পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় লাঠি দিয়ে পুলিশ সদস্যদের বেধড়ক মারধর করে ঘরের মহিলাসহ আসামি সোহেল, তসলিম ও রবিউল হাসান শামীম। লাঠির আঘাতে পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক মনিতোষ চাকমা মাথায় গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হন।

পরে হামলাকারীদের গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...