কোরবানির চামড়া: সংগ্রহ থেকে বিক্র‍য় তদারকি করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

0

আসন্ন কোরবানির ঈদে পশুর চামড়া সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, লবণযুক্ত চামড়া সংরক্ষণ, পরিবহন এবং ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে সব বিষয় তদারকির জন্য প্রতিটি জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করবে মন্ত্রণালয়।

এজন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মালেকা খায়রুন্নেছাকে প্রধান করে চার সদস্যবিশিষ্ট একটি মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি সার্বক্ষণিকভাবে, লবণযুক্ত কাঁচা চামড়া সংরক্ষণ, পরিবহন ও ক্রয়-বিক্রয়ে উদ্ভূত সমস্যা সম্পর্কে জেলা/উপজেলা কন্ট্রোল সেল থেকে প্রাপ্ত সমস্যা লিপিবদ্ধকরণ এবং তা নিরসনে কার্যক্রম গ্রহণ করা, জটিল ও নীতিগত বিষয় সমাধানের লক্ষ্যে প্রাপ্ত সমস্যাবলি মন্ত্রণালয়ে গঠিত কেন্দ্রীয় সমন্বয় ও মনিটরিং কমিটির নিকট তাৎক্ষণিক সরবরাহ করবেন।

এদিকে কাঁচা চামড়ার সংরক্ষণ, ক্রয়/বিক্রয় ও পরিবহনসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা সার্বক্ষণিক তদারকি করার লক্ষ্যে বিভাগওয়ারী সমন্বয়ের লক্ষে অতিরিক্ত সচিব মাে. হাফিজুর রহমানকে প্রধান করে ১৪ সদস্যবিশিষ্ট একটি যৌথ কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, বরিশাল, রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহের চামড়া পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য কর্মকর্তাদের দুজন করে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এই কমিটি কাঁচা চামড়ার সংরক্ষণ ও ক্রয়/বিক্রয়সহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও এ বিষয়ে বিভাগীয় কমিশনারদের সঙ্গে সমন্বয়, চামড়ায় লাগানাের জন্য ব্যবহৃত লবণের সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ; নির্ধারিত মূল্যে চামড়া ক্রয় ওবিক্রয় মনিটরিং; বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক গঠিত সকল মনিটরিং টিমের (বিভাগীয়, জেলা পর্যায়ে) কার্যক্রম তত্ত্বাবধান; অনান্য প্রাসঙ্গিক বিষয় কর্তৃপক্ষের নজরে এনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ; কেন্দ্রিয় যৌথ সমন্বয় কমিটির সঙ্গে সার্বিক বিষয় সমন্বয় করবেন। এই কমিটি প্রয়ােজনে সদস্য কো-অপ্ট করতে পারবেন।

অন্যদিকে, কাঁচা চামড়ার সংরক্ষণ, ক্রয়/বিক্রয় ও পরিবহনসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা সার্বক্ষণিক তদারকি করতে ১৭ সদস্যবিশিষ্ট কেন্দ্রীয় যৌথ সমম্বয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির প্রধান সমন্বয়ক করা হয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘােষকে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, চামড়া অন্যতম জাতীয় সম্পদ ও অন্যতম রপ্তানি পণ্য। এই খাতের হারানো গৌরব ফিরিয়ে এনে চামড়াশিল্পকে একটি টেকসই ভিত্তির ওপর দাঁড় করাতে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে। প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের চামড়াশিল্পকে একটি শক্তিশালী অবস্থানে নেওয়ার জন্যও কাজ চলছে।

কোরবানির পশুর চামড়া আহরণ, সংরক্ষণ পরিবহন এবং ক্রয়-বিক্রয় সংক্রান্ত সাপ্লাই চেইনে যাতে কোনো ধরনের সমস্যা না হয়, সে জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ সারা দেশের প্রশাসন কাজ করছে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...