দুর্ভোগের আর এক নাম চবির সড়ক

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) রাস্তাগুলো দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে চবির বিভিন্ন সড়কে।

ফলে শিক্ষক- শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা- কর্মচারীদের দুর্ভোগ আর ভোগান্তির সীমা নেই। সাথে সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্যহানীও ঘটছে। কিন্তু এগুলো সংস্কারে দৃশ্যমান পদক্ষেপ নজরে পড়ছেনা।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের প্রধান ফটক থেকে জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত সড়কটির বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে ছোট বড় গর্ত।

এছাড়াও গোল পুকুরের রাস্তা, বিজ্ঞান অনুষদ থেকে জীববিজ্ঞান অনুষদে যাতায়াতের রাস্তা, শহীদ মিনার থেকে প্রীতিলতা হল হয়ে দোলা স্মরণি পর্যন্ত রাস্তা, সমাজবিজ্ঞান অনুষদ, গবেষণা পরিচালনা ও প্রকাশনা দপ্তর এবং শাহী কলোনীর সামনের রাস্তাটার বিভিন্ন জায়গায় কার্পেটিং উঠে গেছে। তার থেকে ছোট বড় নানা খানা খন্দকের সৃষ্টি হচ্ছে। যার ফলে সামান্য বৃষ্টিতেও পানি জমে থাকে।

এতে যানবাহন চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। আর রাতে বিদ্যুৎ না থাকলে শিক্ষার্থীদের আরেক দফা দুর্ভোগে পড়তে হয়। অন্ধকারে মাঝে মাঝে গর্তে পড়ে যান তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে সিএনজি ও রিকশা চালকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, চালকদের দুর্ভোগের চেয়ে যাত্রীদের সমস্যা বেশি হয়। অনেক সময় বড় গর্তে পড়ে গাড়ি উল্টেও যায়। এতে শিক্ষার্থীদের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়।

অভিযোগ রয়েছে, নিম্নমাণের উপাদান আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঠিক ও পর্যাপ্ত তদারকির অভাবে রাস্তাগুলোর আজ বেহাল দশা।

এ বিষয়ে চবির প্রকৌশল দপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী আবু সাঈদ জয়নিউজবিডির সাথে মোবাইলে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...