গৌরী এল বাপের বাড়ি

0

শরতের শিউলি ঝরা সকাল মা দুর্গার আগমনী জানান দিচ্ছে। জানাচ্ছে উৎসব সমাগত। মণ্ডপ-মন্দির সেজেছে। মেয়ের বাপের বাড়ি আসার সকল আয়োজন সম্পন্ন। দুর্গতিনাশিনী এই মেয়ে সমাজের কল্যাণে আবির্ভূত হন ধরাধামে। সাথে নিয়ে তার চার ছেলে-মেয়ে।

আজ রোববার (১৪ অক্টোবর) মহাপঞ্চমীতে ঘট বসবে মণ্ডপে মণ্ডপে। শুরু হবে দুর্গাপূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা। পঞ্জিকার সূচি অনুযায়ী, আজ সকাল ৮টা ১৪ মিনিট থেকে ষষ্ঠী শুরু হয়ে সোমবার সকাল ৯ টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত স্থায়ী হবে। তাই সায়ংকালে অর্থাৎ সন্ধ্যায় দেবীর বোধন অনুষ্ঠিত হবে।

হিন্দু পঞ্জিকা অনুসারে, আশ্বিন মাসের কৃষ্ণপক্ষের নবমী তিথি অথবা শুক্লপক্ষের ষষ্ঠী তিথিতে হিন্দু দেবী দুর্গার পূজারম্ভের প্রাক্কালে অকালবোধন অনুষ্ঠিত হয়। হিন্দু বিশ্বাস অনুসারে, শরৎকাল দেবলোকের রাত্রি দক্ষিণায়নের অন্তর্গত। তাই এ সময় দেবপূজা করতে হলে, আগে দেবতার বোধন (জাগরণ) করতে হয়। একাধিক পুরাণ ও অন্যান্য হিন্দু ধর্মগ্রন্থে উল্লেখ রয়েছে, রাবণ বধের পূর্বে রাম (মতান্তরে ব্রহ্মা) দেবী দুর্গার কাছে আশীর্বাদ প্রার্থনা করে বিল্ববৃক্ষতলে বোধনপূর্বক দুর্গাপূজা করেছিলেন। শরৎকাল দেবপূজার ‘শুদ্ধ সময়’ নয় বলে রাম কর্তৃক দেবী দুর্গার বোধন ‘অকালবোধন ‘ নামে পরিচিত হয়।

নগরের বিভিন্ন মণ্ডপে চলছে মা দুর্গাকে বরণের প্রস্তুতি। হাজারী গলি, রাজাপুর লেইন, চেরাগি পাহাড়, দেওয়ানজি পুকুরপাড়, রুমঘাটা, ঘাটফরহাদবেদ, পাথরঘাটা, কুসুমকুমারি স্কুল, সদরঘাট, আগ্রাবাদসহ প্রায় সব জায়গাতে শেষ হয়েছে পূজার প্রস্তুতি।

এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে দুপুরে জামালখান কুসুম কুমারী সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে শারদীয়া অনুষ্ঠান।

এদিকে শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষে চট্টগ্রামবাসীকে সুদূর চীন থেকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চসিক মেয়র ও জয়নিউজের চেয়ারম্যান আ জ ম নাছির উদ্দীন।

শুভেচ্ছা বার্তায় তিনি বলেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এখানে সব ধর্মের সমানাধিকার আছে। সকল ধর্মের মূল বাণী হলো শান্তি আর মানবতা। সকল ধর্মের সম্প্রীতির যে ঐক্য দেশে বিরাজমান, তা যেন অব্যাহত থাকে। সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থি অসুর অপশক্তির বিরুদ্ধে দেবী দুর্গার মত করে লড়াই করতে হবে।

হাজারী গলি পূজা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ভূপেন রায় জয়নিউজকে জানান, আজ উদ্বোধনের মধ্যমে শুরু হতে যাচ্ছে আমাদের আয়োজন। সাথে থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এবার আমাদের থিম থাকছে ‘মুখোশ ও মূর্তি’।

দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার জন্য রয়েছে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী।

জয়নিউজ/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...