ইমরুল-সৌম্যের ব্যাটে ঝড়

0

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম থেকে: ইউসিবি তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ম্যাচে ২৮৭ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে  প্রথম বলেই লিটন দাসের উইকেট হারিয়ে খানিকটা বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। লিটনের বিদায়ে উইকেটে এসে ব্যাট চালাতে থাকেন সৌম্য। ফলে মাত্র ১৫ ওভারেই ১০০ রানের জুটি গড়ে ফেলেন ইমরুল-সৌম্য।

এর আগে গত ম্যাচে ৮৩ রান করা লিটন এদিন কাইল জার্ভিসের করা ইনিংসের প্রথম বলেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন লিটন। লিটনের বিদায়ে মাঠে আসেন সিরিজের মাঝপথে দলে ডাক পাওয়া সৌম্য সরকার।

ইমরুল-সৌম্য জুটিতে পঞ্চাশ

প্রথম বলেই উইকেট হারানো বাংলাদেশ প্রতিরোধ গড়েছে ইমরুল কায়েস ও সৌম্য সরকারের ব্যাটে। অবিচ্ছিন্ন দ্বিতীয় উইকেটে পঞ্চাশ রানের জুটি গড়েছেন এই দুই বাঁহাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান।

কাইল জার্ভিসকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৪০ বলে জুটির রান পঞ্চাশে নিয়ে যান ইমরুল।

দুই ব্যাটসম্যানই খেলছেন ঝুঁকি নিয়ে। অল্পের জন্য কয়েকবার ফিল্ডার নাগাল পাননি মাথার ওপর দিয়ে যাওয়া ক্যাচের। ব্যাটের কানায় লেগে স্লিপ দিয়ে এসেছে কয়েকটি বাউন্ডারি।

২১ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৪০/১। ছন্দে থাকা ইমরুল ৭০ ও দলে ফেরা সৌম্য ৬০ রানে ব্যাট করছেন। জয়ের জন্য আরও ১৪৭ রান চাই স্বাগতিকদের।

প্রথম বলেই ফিরলেন লিটন

আগের ম্যাচে প্রথম ওভারে বেঁচে গিয়েছিলেন রিভিউ নিয়ে। এবার আর হলো না। প্রথম বলেই এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরলেন লিটন দাস।

কাইল জার্ভিসের মিডল স্টাম্পে পড়া ইন সুইঙ্গার ব্যাটে খেলতে পারেননি ডানহাতি ওপেনার। আম্পায়ার জোরালো আবেদনে সাড়া দিয়ে এলবিডব্লিউ দিলে ইমরুল কায়েসের সঙ্গে কথা বলে রিভিউ নেন লিটন। তাতে দেখা যায় লেগ স্টাম্পে লাগতো বল।

তাই পাল্টায়নি আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত। গোল্ডেন ডাকের স্বাদ পান আগের ম্যাচে ঝকঝকে এক ফিফটি করা লিটন।

১ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১/১। ক্রিজে ইমরুলের সঙ্গী সৌম্য সরকার।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...