মিরসরাইয়ে হাতের রগ কেটে যুবক হত্যা

0

মিরসরাইয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রগ কেটে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে। নিহত যুবকের নাম শাহ আলম (২৫)। তিনি মিরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের ওয়াহেদপুর গ্রামের আলী আকবরের ছেলে।

বুধবার (৩১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ওয়াহেদপুরে পাহাড়ের পাদদেশে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়।

মৃত শাহ আলমের ফুপাতো ভাই মামুন জয়নিউজকে জানান, শাহ আলম নিজামপুরে জাহাঙ্গীরের ওয়ার্কশপে কাজ করতো। বুধবার তাকে কে বা কারা ফোনে ডেকে নিয়ে পাহাড়ের নিচে হত্যা করে। মামুন বলেন, আমি বাজারে ছিলাম। সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে ছুটে এসে এসব তথ্য জেনেছি।

নিহত শাহ আলমের বাবা আলী আকবর হাসপাতালে জয়নিউজকে জানান, নিজামপুর কলেজে যাওয়া না যাওয়া নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে ঝামেলা হয়েছিল বলে শুনেছি। শাহ আলম কলেজে পড়তো কী না এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগেই তিনি জ্ঞান হারান। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুমন ঘোষ জয়নিউজকে জানান, রাত আটটায় ওই যুবকের লাশ হাসপাতালে আনা হয়। তিনি বলেন, ওই যুবকের ডান হাতের রগ কাটা ছিল। দুই পা ভেঙে ফেলা হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জখম করা হয়েছে।

মিরসরাই থানার ওসি জাহেদুল কবির জয়নিউজকে জানান, রাত প্রায় সাড়ে সাতটায় শাহ আলমের লাশ তার স্বজনরা উদ্ধার করে মস্তাননগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে পুলিশ খবর পায়। হাসপাতালে গিয়ে স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে। আসামি আটক ও মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...