মেলার শেষদিনেও করদাতাদের ঢল

0

নগরে শুরু হওয়া  সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার শেষদিনে ভিড় ছিল করদাতাদের। মেলার সপ্তমদিনে বেড়েছে সেবাগ্রহণকারী করদাতা। বেড়েছে নতুন ইটিআইএন ও আয়কর আদায়ও।

সোমবার (১৯ নভেম্বর) নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে শুরু হওয়া সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলায় ৫৬০ কোটি ৮৩ লাখ ৪৩ হাজার ৮৩৮ টাকার কর আদায় হয়েছে।

সেবা নিতে এসে করদাতা অঞ্জনা দেবনাথ জয়নিউজকে বলেন, মেলায় দুইদিন ধরে আসছি। এখানে কোনোপ্রকার হয়রানির শিকার হতে হয়নি। মেলায় এসে এক ছাদের নিচেই করসংক্রান্ত সবকিছু পেয়ে যাচ্ছি।

আয়কর মেলার তথ্য ব্যবস্থাপনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান জানান, এবারের মেলায় করদাতাদের ভালো সাড়া ছিল। গতবারের মেলার তুলনায় এবারের মেলায় করদাতাদের সংখ্যা বেশি। এবার ৩ লাখ ৩ হাজার ৩৩০ জন করদাতা সেবা গ্রহণ করেছেন। মেলায় সর্বমোট ৫৬০ কোটি ৮৩ লাখ ৪৩ হাজার ৮৩৮ টাকার কর আদায় হয়েছে। রিটার্ন দাখিল করেছেন ৪৭ হাজার ১২৯ জন। নতুন ই-টিআইএন নিয়েছেন ২ হাজার ৬৫ জন এবং রেজিস্ট্রেশন করেছেন ১ জন।

তিনি আরো জানান, সোমবার মেলার শেষ দিনে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল-১ এর অধীনে রিটার্ন দাখিল করেছেন ৪ হাজার ৬১৮ জন এবং কর আদায় হয়েছে ৪৮ কোটি ১১ লাখ ৩ হাজার ৫৭৭ টাকা। কর অঞ্চল-২ এর অধীনে ১ হাজার ৬৩০ জন রিটার্ন দাখিল করেছেন, কর আদায় হয়েছে ১০ কোটি ৯ লাখ ৫৫ হাজার ৮৩২ টাকা।

কর অঞ্চল-৩ এর অধীনে রিটার্ন জমা দিয়েছেন ৩ হাজার ৫৫৩ জন। কর আদায় হয়েছে ৫ কোটি ৮১ লাখ ৩৭ হাজার ৯০৩ টাকা।

কর অঞ্চল-৪ এ ১ হাজার ৭৮৫ জনের রিটার্ন ও ৮ কোটি ১৩ লাখ ৫৪ হাজার ৬৩৯ টাকার কর জমা পড়েছে।

সপ্তাহব্যাপী মেলায়  ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশন করেছে ১ জন।

এছাড়া জরিপ রেঞ্জ-৩ এর অধীনে ৩২ জন রিটার্ন দাখিল করেন। ৭ লাখ ৪ হাজার ১৭০ টাকার কর আদায় করা হয়।

এছাড়া রাঙামাটি জেলায় ৩৪৭ জন রিটার্ন দাখিল ও ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮২৭ টাকার কর আদায়, রামু উপজেলায় ৩৬ জন রিটার্ন দাখিল ও ৩৮ হাজার ৮৫৭ টাকার কর আদায়, চকরিয়া উপজেলায় ৩৭২ জন রিটার্ন দাখিল ও ১৪ লাখ ৯৫ হাজার টাকার কর আদায় হয়েছে।

জয়নিউজ/মনির ফয়সাল
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...