চবির পরিবহন সংকট নিরসনে উপাচার্যকে স্মারকলিপি

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) বিদ্যমান পরিবহন সংকট নিরসনে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে সম্মিলিত গণতান্ত্রিক শিক্ষার্থী সংসদ।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে এই স্মারকলিপি প্রদান করেন।

স্মারকলিপিতে ১২টি দাবি উল্লেখ করা হয়। দাবিগুলো হলো- শাটল ট্রেনের বগি বৃদ্ধি, ডাবল লাইন চালু, ট্রেনের বগিগুলোর পুনঃসংস্কার, স্টেশনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাধ্যমে যাতায়াতকারী শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, প্রতিটি স্টেশনের শৌচাগারগুলো শিক্ষার্থীদের ব্যবহার উপযোগী করে তোলা, ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও শিক্ষার্থীদের জন্য স্টেশনে বসার সুব্যবস্থা করা, ক্যাম্পাস থেকে নগর পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে যাত্রী ছাউনি স্থাপন করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে শিক্ষার্থীদের জন্য পুনরায় বাস সার্ভিস চালু করার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা বাস চালু করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১নং গেটে রাস্তা পারাপারের জন্য একটি ফুটওভারব্রিজ ও দুইটি স্পিডব্রেকার তৈরি করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে ন্যায্য রিকশা ভাড়া নির্ধারণ ও তা কার্যকর করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১নং গেট থেকে জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত রাস্তা মেরামত করা এবং স্টেশনে নির্মিত বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতি সংস্কার করা।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, ১৯৬৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান শহর থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে হাটহাজারীর জোবরা গ্রামে। এই দূরত্বের কারণে এখানকার শিক্ষার্থীদের সবচেয়ে বড় সমস্যা যাতায়াত। যাতায়াতের সুবিধার্থে ১৯৮০ সালে শাটল ট্রেনের যাত্রা শুরু হয়। প্রতিদিন প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থীর যাতায়াতের মাধ্যম এই শাটল ট্রেন। কিন্তু ৯ বগির মাত্র দুটি শাটল ট্রেন শিক্ষার্থী সংখ্যার তুলনায় অপ্রতুল। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য বাসের ব্যবস্থা খুবই কম। কাজেই যাতায়াতের নানাবিধ সমস্যার কারণে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ও সম্মিলিত গণতান্ত্রিক শিক্ষার্থী সংসদের প্রতিষ্ঠাতা এনামুল হক আরাফাত, চবি ছাত্রলীগের সাবেক সহসম্পাদক শরীফ উদ্দিন, কাজী পাপন, মিজানুর রহমান খান, আলমগীর, আশরাফুল আলম চপল, রনি তালুকদার, খিজির মির্জা, ও সাদাফ খান।

জয়নিউজ/নবাব/জুলফিকার
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...