খাল খনন করে পাকা ভবন, জলাবদ্ধতায় জনদুর্ভোগ

0

রাউজানের পূর্বগুজরা ইউনিয়নের আধারমানিক নুনাপুকুর এলাকার যোগীছড়া খাল ভরাট করে পাকা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। আয়েশার বাপের বাড়ির বাসিন্দা নাসের ও তার ভাই নাজের এমনটি করেছেন। এতে জলাবদ্ধতায় বেড়েছে জনদুর্ভোগ।

উপজেলার ১০নং পূর্বগুজরা ইউনিয়নের উত্তর গুজরা এলাকায় কাগতিয়া খাল থেকে শুরু হয়েছে যোগিছড়া খাল। খালটি উত্তর গুজরা এলাকা হয়ে আধারমানিক নুনাপুকুর হয়ে মগদাই খালের সঙ্গে মিলেছে। যোগীছড়া খাল দিয়ে বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি প্রবাহিত হতো। কিন্তু খাল ভরাট করে পাকাঘর নির্মাণ করায় বর্ষায় বৃষ্টির পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। এতে এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে ফসলি জমিতে ফসল উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে । ফসলি জমি ও বসতবাড়ি পানিতে ডুবে হাজার হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ।

অপরদিকে খালের পানি প্রবাহিত হতে না পারায় পানির স্রোতের সঙ্গে আসা মাটি জমে খালটি ভরাট হয়ে যাচ্ছে। খাল ভরাট করে পাকা ভবন নির্মিত হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে নীরব। একইভাবে পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের আধারমানিক এলাকার বনিছড়ি খালটিও ভরাট করে ফেলায় খাল দিয়ে বৃষ্টির পানি চলাচলে বাধার সৃষ্টি হচ্ছে। এতে এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে।

পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের মেম্বার চন্দ্রসেন বড়ুয়া ও আবদুল সালাম বলেন, যোগীছড়া খাল ও বনীছড়া খাল ভরাট করে ফেলায়  জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে । জলাবদ্ধ থাকায় ব্যাহত হচ্ছে ফসল উৎপাদন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নাসেরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জয়নিউজকে বলেন, যোগীছড়া খালের পাশে ফসলি জমি ও খাল ভরাট করে বসতভিটা তৈরি করে নুনাপুকুর এলাকার এক হিন্দু পরিবার । ওই পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে ভরাট করা বসতভিটা ক্রয় করে আমরা পাকা ভবন নির্মাণ করেছি। সরকার খাল খনন করলে আমরা নির্মাণ করা পাকা ভবন ভেঙে খালের জায়গা ছেড়ে দেব।

জয়নিউজ/শফি/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...