ডেঙ্গু নিয়ে মন্ত্রী-এমপিরা হাসিঠাট্টা করছে: ডা. শাহাদাত

0

মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ডেঙ্গু রোগ মহামারী আকার ধারণ করেছে। অথচ সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা এ নিয়ে হাসি-ঠাট্টা করছে। তারা রাস্তায় ঝাড় দিয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধের নামে জনগণের সঙ্গে তামাশা করছে। এ সরকার ডেঙ্গু বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।

বিএনপি জনগণের দল, জনগণের যে কোনো দুর্ভোগে এ দলের নেতাকর্মীরা পাশে থাকেন। ডেঙ্গু মোকাবেলায়ও জনগণকে সহায়তার জন্য বিএনপি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে এবং নেতাকর্মীরা সার্বক্ষণিক সহযোগিতা দিচ্ছে।

সোমবার (৫ আগস্ট) দুপুরে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে মহানগর বিএনপির উদ্যোগে ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর সহায়তায় হটলাইন সেবা চালু করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সি. সহসভাপতি আবু সুফিয়ান।

এতে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ডেঙ্গু রোগ অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙে সারাদেশে এখন মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। বর্তমানে ২৫ হাজার ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছে। বিভিন্ন তথ্যমতে ডেঙ্গুরোগীর সংখ্যা সাড়ে ৩ লাখের অধিক।

চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩ শ ৪৮ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ডেঙ্গুর ভয়াবহতায় সারাদেশে ৫৭ জন মানুষ মারা গেছেন। ডেঙ্গু নিয়ে দেশের মানুষ আতঙ্কিত। অথচ এই সময়ে সরকারের মন্ত্রী, এমপি, আমলারা বিদেশ ভ্রমণে ব্যস্ত। স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিজেও বিদেশে ছিলেন। তিনি এসে ডেঙ্গুর সাথে রোহিঙ্গাদের তুলনা করেছেন। যা খুবই অমানবিক।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন এই সময়ে বিদেশ ভ্রমণে রয়েছেন। দেশের মানুষকে মহামারির মধ্যে রেখে তারা উৎসবে মেতেছে। দেশের এই ক্লান্তিকালে বিএনপি দেশের মানুষের সঙ্গে আছেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি এম এ আজিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, অধ্যাপক নুরুল আলম রাজু, ইকবাল চৌধুরী, এস এম আবুল ফয়েজ, যুগ্ম সম্পাদক কাজী বেলাল উদ্দিন, মো. শাহ আলম, ইসকান্দর মির্জা, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, আবদুল মান্নান, আহমেদুল আলম রাসেল, কাউন্সিলর আবুল হাসেম, আনোয়ার হোসেন লিপু, সাহেদ বক্স, সামশুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মেডিকেল ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ডা. জসিম উদ্দিন, ড্যাব চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অধ্যাপক ডা. তমিজ উদ্দিন আহমেদ মানিক, চট্টগ্রাম মেডিকেলের সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়েজুর রহমান, চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক ডা. বেলায়েত হোসেন ঢালি, মেডিকেলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ডা. ঈসা চৌধুরী, কোতোয়ালি থানা বিএনপির সভাপতি মঞ্জুর রহমান চৌধুরী, নগর মহিলা দল সভাপতি কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মনি, নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খান, নগর বিএনপির সহসম্পাদক আবদুল হালিম স্বপন, মো. ইদ্রিস আলী, ডা. শাকির উর রশিদ, আবু মুসা, কাউন্সিলর আরিফুল ইসলাম ডিউক, নগর মহিলা দল সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী, নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, ডা. দাউদ সিদ্দিকী, ডা. মাসুদ পারভেজ, ডা. মিজানুর রহমান ও ডা. মেহেদী হাসান।

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ডেঙ্গু মশার জন্ম হয় স্বচ্ছ পানিতে, টায়ার, টিনের কোঠা ও বাসাবাড়ির ছাদে ফুলের টপে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে এসব জায়গা নিয়মিত পরিস্কার রাখতে হবে। কোথাও পানি জমে থাকতে দেওয়া যাবে না। চট্টগ্রামের ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের সহায়তার জন্য নাসিমন ভবনস্থ বিএনপি কার্যালয়ে প্রতিদিন সকাল দশটা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ড্যাবের পক্ষ থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা পরামর্শ সেবা দিবেন। ডেঙ্গুর লক্ষণ দেখা দিলে ফোন করে পরামর্শ নিতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ৫টি হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তাদের দ্বারা গঠিত হটলাইন নম্বরে ফোন করে ডেঙ্গুর পরামর্শ নেওয়া যাবে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডা. সোহাগ (০১৭৬৪১০৯২৬৬), ডা. দাউদ সিদ্দীকী (০১৯১৭৭৪৫৮০৫), ইউএসটিসি হাসপাতালে ডা. লুসি খান (০১৭০১৭৩২৫৯০) ডা. ইমরান (০১৬৭১৫২০২৮৬), ডা. ইরফান খান নিবীর (০১৬৭৬৩১৯২২০), ডা. মীর কাশেম মজুমদার ০১৬৮৩৪১৬৪২৬), ডা. সৈয়দ মো. ফাহাদ (০১৮১৭৬৯০৩৪৬), বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডা. সালমান রহমান (০১৭৭৭৫৭৪৭৯৮), ডা. মোহাম্মদুল হক জনি (০১৮২৩১৫২২০৭), ডা. জাহেদ (০১৭৭৭০১৫১০২), ডা. শাহেদ (০১৮৪৩৭৭৬৮৮৯), ডা. নাদিম (০১৮৪৩৬৫৬৭১৩), সাউদান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডা. মাসুদ পারভেজ (০১৬২৪৫১২৪২৪),. তারেকুল ইসলাম (০১৮২৭৯৩৬০৬৮), ডা. এহসান (০১৬৭৫৭২৭২০১), ডা. মিজানুল আলম (৯০১৭১৬৩৪৯৭১২), ডা. সাকিব (০১৮২৪৮৩৩৮৬১), মা ও শিশু হাসপাতালে ডা. রাকিবুল হাসান (০১৬২৬৯০৯৭৬৪) ও ডা. রানা চৌধুরী (০১৭১৯১২৩১৮৫) নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...