রাউজানে আ.লীগ নেতার নির্মাণাধীন বাণিজ্যিক ভবন উচ্ছেদ

0

রাউজানে এক আওয়ামী লীগ নেতার নির্মাণাধীণ বাণিজ্যিক ভবন উচ্ছেদ করা হয়েছে।

রোববার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত উপজেলার নোয়াপাড়া পথের হাটের চট্টগ্রাম-কাপ্তাই সড়কে এ উচ্ছেদ অভিযান চালায় সওজ।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন সওজের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (উপসচিব) মনোয়ারা বেগম। দখলদার স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়ার উপস্থিতিতেই অভিযান চালানো হয়।

জানা যায়, বাবুল মিয়া নোয়াপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য। তিনি নোয়াপাড়া পথের হাটের পাইনিওয়র হাসপাতালের সামনে সওজের ২৫ শতক জায়গা (জেএল নম্বর ৪৮, বিএস দাগ নম্বর ৬৪২৯) দখল করেন। বাণিজ্যিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর দিয়ে তিনি সেখানে ২৪টি পিলার ঢালাইয়ের কাজ শেষ করেন। দোকান বিক্রির চুক্তিতে অনেকের কাছ থেকে বাবুল মিয়া টাকাও নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

রোববার পুলিশের সহয়াতায় স্কেভেটর দিয়ে বাণিজ্যিক ভবনের জন্য স্থাপন করা পিলার গুড়িয়ে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়া জয়নিউজকে বলেন, ওনারা বলছে এটা সরকারি জায়গা। যদি তাই হয় তাহলে কাপ্তাই রোডের দুই পাশের সব বিল্ডিংতো সরকারি জায়গায়। ভারতেশ্বরী প্লাজায়ও সরকারি জায়গা আছে। সরকারি জায়গা কোথায় নেই? আমি কিছু করিনি। আপনি এসে দেখে যান। এই বলে তিনি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।

পরে ফের যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি আগে যেগুলো বলেছি সেগুলো সম্বন্ধে লিখেন। এগুলো কেমনে হয়েছে সেগুলো লিখেন। ভারতেশ্বরী, মিডিয়া ভবন আরও বিল্ডিং আছে। এগুলো আগে লিখেন তারপর আমারগুলো লিখেন।

যোগাযোগ করা হলে সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহমেদ জয়নিউজকে বলেন, মন্ত্রণালয়ে অভিযোগপত্র জমা পড়েছিল। ওই অভিযোগপত্র থেকে আমাদের দ্রুত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে দখলমুক্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, অবৈধ দখলদারের বিষয়ে কোনো ছাড় নেই। তিনি আওয়ামী লীগ নেতা হোন কিংবা বিএনপি নেতা।

আরও অবৈধ দখলদারদের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। পরিমাপ চলছে। পর্যায়ক্রমে উচ্ছেদ করা হবে।

জয়নিউজ/শফিউল আলম

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...