জন্মদিনে আর কেক কাটবেন না রাইফার মা

0

রাফিদা খান রাইফা। ২০১৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে সিজার অপারেশনের মাধ্যমে জন্ম নেয় সে।

তারিখটা আসবে চার বছর পর পর। তাই জন্মের পর ডা. হোসনে আরা শ্যামা ওইদিনই হাসপাতালে কেক কেটে রাইফার জন্মদিন পালন করার আহবান জানান পরিবারের কাছে। রাইফার পরিবারও সানন্দে রাজি হয়ে যায়। এরপর ওই হাসপাতালে জন্মদিনের কেক কেটে উপস্থিত ডাক্তার ও নার্সদেরকে খাওয়ানো হয়।

পরিবারের কনিষ্ঠ ও নবীন সদস্য রাইফার জন্মদিন পালনের জন্য চার বছর অপেক্ষা করা ছিল তার বাবা-মার কাছে অনেক কঠিন একটি ব্যাপার। তাই পারিবারিকভাবে সিদ্ধান্ত হয় চার বছর পর পর ঘটা করে শিশু কন্যা রাইফার জন্মদিন পালন করা হবে। আর প্রতি বছর মায়ের জন্মদিনে কেক কেটে পালন করা হবে রাইফার জন্মদিনও।

ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১৬ ও ২০১৭ সালের ২১ সেপ্টেম্বর কেক কেটে মায়ের সঙ্গে রাইফার জন্মদিন পালনও করা হয়। কিন্তু এবার মায়ের জন্মদিনে আর কেক কেটে রাইফার জন্মদিন পালন করা হচ্ছে না।

গত ২৯ জুন নগরীর সেই ম্যাক্স হাসপাতালেই অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার কারণে মাত্র দুই বছর চার মাস বয়সেই মৃত্যুবরণ করে সাংবাদিক কন্যা রাইফা। অবহেলা ও ভুল চিকিৎসায় ফুটফুটে এই শিশু কন্যার অকাল মৃত্যুতে সারাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিক্ষুব্ধ হয় দেশের সাংবাদিক সমাজ। শোকাহত হয় দেশের সকল বিবেকবান মানুষ। শোকে যেন পাথর হয়ে যান রাইফার বাবা-মা। সন্তানের এমন মৃত্যু মেনে নেয়া যে কোনো বাবা-মার জন্যই অনেক কঠিন। তাই শোকাহত রাইফার মা রুমানা খান সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিজের জন্মদিনে আর কেক কাটবেন না তিনি।

এ প্রসঙ্গে শিশু কন্যা রাইফার মা রুমানা খান বলেন, রাইফার প্রথম জন্মদিন ওর বাবা বেশ ঘটা করেই উদযাপন করেছিলেন। এরপর এটা যেন আমাদের পরিবারের রেওয়াজ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। প্রতিবছরই ২১ সেপ্টেম্বর নানা আয়োজনে জন্মদিন পালন করা হতো। কিন্তু এবার থেকে আর জন্মদিনের কেক কাটবো না আমি। পালন করা হবে না জন্মদিনও। আমার একমাত্র আদরের কন্যা রাইফা জন্মদিনের কেক কাটতে এবং খেতে খুব পছন্দ করতো। তাই কোনো উপলক্ষ ছাড়াই মাঝে মাঝে রাইফার জন্য ওর বাবা কেক কিনে আনতো। সকলকে নিয়ে সেই কেক কেটে বেশ মজা করে খেতো রাইফা। তার ওইসব স্মৃতি আমি ভুলবো কি করে? কেক দেখলেই যে ওর কথা মনে পড়ে যাবে। ওকে ছাড়া কিভাবে জন্মদিনের কেক কাটবো? তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আর কখনোই জন্মদিনের কেক কাটবো না।’

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুন রাতে চট্টগ্রামের বেসরকারি ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় শিশু রাইফা। এ ঘটনায় ভুল চিকিৎসা ও চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ আনেন রাইফার বাবা সমকালের সাংবাদিক রুবেল খান।

 

জয়নিউজ/হোসেন

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...