সদ্য ও সত্য সংবাদ নিয়ে জয়নিউজ

তথ্য জানানোর অবিচল অঙ্গীকার

0

যেসব ঘটনা বিশ্বকাঁপানো, যেসব খবর আড়ালে লুকানো,

আমাদের কাজ সব জানানো।

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, জয়নিউজের যাত্রা শুরু আনুষ্ঠানিকভাবে। কেন অনলাইনে এলাম আমরা? আমরা স্মরণ করছি কবিগুরুর সেই অমোঘ উক্তি— ‘দূরের সহিত নিকটের, অনুপস্থিতের সঙ্গে উপস্থিতের সম্বন্ধ পথটা সমস্ত দেশের মধ্যে অবাধে বিস্তীর্ণ হইলে তবেই তো দেশের অনুভব শক্তিটা ব্যপ্ত হইয়া উঠিবে। মনের চলাচল যতখানি, মানুষ ততখানি বড়ো। মানুষকে শক্তি দিতে হইলে মানুষকে বিস্তৃত করা চাই।’ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর যখন কথাটি বলছেন, তার অনেক বছর পর সংবাদপত্র সভ্যতার একটি প্রধান অঙ্গ হয়ে উঠেছে। এখন সংবাদপত্রের চাইতেও শক্তিশালী হয়ে উঠছে অনলাইন মাধ্যম। আমরা তাৎক্ষণিক সংবাদ জানতে সক্ষম হই অনলাইন গণমাধ্যমের কল্যাণে, বিশেষ করে অনলাইন নিউজ পোর্টাল সহজেই আপনার সার্বক্ষণিক হাতের মুঠোয় নিয়ে আসে দুনিয়াকে। তাই অনলাইন মাধ্যম আমাদের বর্তমান জীবনের এক অপরিহার্য সঙ্গী।

জয়নিউজ অনলাইন ভুবনের নতুন অতিথি। এই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মাননীয় মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। সম্পাদক ও প্রকাশক অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন)।  ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরুণ শিল্পপতি আলমগীর পারভেজ। চট্টগ্রামের প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ উদ্যোক্তা বিপ্লব পার্থ, এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও)। অপরদিকে চট্টগ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক বিশ্বজিত বণিক, যার যোগ্য পৌরহিত্যে চট্টগ্রামের একদল চৌকস সংবাদকর্মী মিলে প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তুলছেন। পরামর্শক সম্পাদক হিসেবে আছেন শিক্ষক ও সাবেক সাংবাদিক রাজীব নন্দী। এরাই আমাদের জয়নিউজ পরিবারের অভিভাবক। সাথে আছেন একদল চৌকস সাংবাদিক। আমাদের প্রত্যাশা, এই প্রতিষ্ঠান অনলাইন ভুবনে ছাপ ফেলবে নতুনত্বের, সৃজনশীলতার এবং অভিনবত্বের।

সংবাদমাধ্যমের টিকে থাকার জন্য ব্যবসাও জরুরি। সেই ব্যবসার অন্যতম ভিত্তি হচ্ছে দর্শক, শ্রোতা বা পাঠক। তাদের সঙ্গে এক অলিখিত চুক্তিতে সংবাদমাধ্যম জড়িয়ে পড়ে। পাঠক-শ্রোতার জানার আগ্রহ থাকতে পারে, তার স্বার্থসংশ্লিষ্ট এমন সব খবর, সম্ভাব্য সকল বাধা-বিপত্তি সত্ত্বেও সবাইকে জানাবে, আমাদের ইচ্ছা এমনই। তাই বাংলাদেশের ব্যবসাবান্ধব সফল প্রতিষ্ঠানগুলো আমাদের টিকে থাকার অন্যতম উৎস।

আমাদের লক্ষ্য ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ প্রত্যয়কে কর্মে ধারণ করা। অনলাইন ভুবনে বিরাট এক পরিবর্তন ও ক্রান্তিকালের মধ্য দিয়ে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। আমরা বিশ্বাস করি, ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রত্যয়টি জ্ঞানভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রথম সোপান। একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য যে সমৃদ্ধি ও উন্নত জীবন প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছি, ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের সেই স্বপ্ন পূরণ করবে।

সত্যনিষ্ঠ, নিরাসক্ত, নির্ভীক ও কঠোর সমালোচনা; এমন সাংবাদিকতাই আমাদের পাথেয়। স্বাধীনতার স্বপ্নস্বাদ সম্পূর্ণ উপভোগের আশায় লড়াইয়ের ময়দানে আমরা নিয়োজিত। সত্যের অবিচল প্রতিষ্ঠাযুদ্ধে স্বাধীন বাংলাদেশের গণতন্ত্রমনা, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সংগ্রামে আমাদের সকল কর্মীই হয়ে উঠবে আপোষহীন সাংবাদিক ও গণতান্ত্রিক বুদ্ধিজীবীতার সৈনিক। সদ্য ও সত্য, সংবাদ উপস্থাপনায় এই  দুটো বৈশিষ্ট্য আমাদের অবিচল রাখবে।

ভয় ও অনুগ্রহের উর্ধ্বে আমরা চাই সত্যকে তুলে ধরতে।  সত্য অনুসন্ধানে আমাদের কর্মীরা ছুটবে মাঠে-ঘাটে, দেশ-দেশান্তরে।  আমরা তুলে ধরবো সর্বশেষ ঘটে যাওয়া ঘটনা আর তার পেছনের ঘটনাও।  সদ্য ও সত্য; দুটোই তুলে ধরতে চাই আপনার সহযোগিতা, আপনার অংশগ্রহণ।

জয় হোক, জয় নিউজের!

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...