চান্দগাঁওয়ে রিকশা থেকে নামিয়ে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

0

চট্টগ্রামে বাসায় ফেরার পথে ২২ বছর বয়সী এক গৃহবধূকে রিকশা থেকে নামিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশের এক সোর্স ও এক নারীসহ আট জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাতে নগরের চান্দগাঁও থানার মৌলভীপুকুরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানায়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন— পুলিশের সোর্স জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), মো. ইউসুফ (৩২), মো. রিপন (২৭), মো. সুজন (২৪), দেবু বড়ুয়া প্রকাশ জোবায়ের হোসেন, মো. শাহেদ (২৪), রিন্টু দত্ত বিপ্লব (৩০) ও মনোয়ারা বেগম ওরফে লেবুর মা (৫৫)। এদের মধ্যে রিপন, সুজন, শাহেদ ও মনোয়ারা ছাড়া বাকিরা সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক।

শুক্রবার (৯ অক্টোবর) মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, জেলার রাঙ্গুনিয়া থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে চান্দগাঁও এলাকায় নামেন ওই গৃহবধূ। সেখান থেকে রিকশায় চকবাজারের বাসায় যাওয়ার জন্য রওনা হন। পথিমধ্যে মৌলভী পুকুরপাড় এলাকায় তাকে রিকশা থেকে নামিয়ে রাস্তার পাশে একটি ডাস্টবিনের আড়ালে নিয়ে জাহাঙ্গীরের নেত্বত্বে গ্রেপ্তারকৃতরা ধর্ষণ করে।

রাতে ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন, বলেন বিজয় বসাক।

তিনি বলেন, ওসিসি থেকে খবর পেয়ে আমরা অভিযান চালাই। আসামি জাহাঙ্গীরকে পটিয়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া নগরের অন্যান্য জায়গা থেকে বাকিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা বিজয় বসাক বলেন, আসামিরা ওই নারীকে মারধোর করে মোবাইল ও দুই হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। রাত সাড়ে ৪টার দিকে আমরা ওসিসি থেকে খবর পাই। ভুক্তভোগীকে আসামিদের ছবি দেখিয়েছি। তিনি তাদেরকে চিহ্নিত করেছেন। ঘটনাস্থল থেকে আমরা ধর্ষণের আলামত উদ্ধার করেছি। এই ঘটনায় জড়িত আরও কয়েকজনকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলেও তিনি জানান।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...