রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় মা-ছেলের কারাদণ্ড

0

পটিয়ায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয়-দেওয়ার দায়ে মা ও ছেলেকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাবিবুল হাসান এ আদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, জহুরা বেগম (৪১) ও তোয়ারেজ (২০)। তারা কচুয়াই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ফারুকীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মালয়েশিয়া প্রবাসী আবুল কাসেমের পরিবার কয়েক বছর ধরে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে আসছিল। তাদের প্রশ্রয় পেয়ে রোহিঙ্গারা এলাকায় ইয়াবার রমরমা ব্যবসা শুরু করে। ফলে পুরো এলাকায় গড়ে উঠে ইয়াবা কারবারীদের একটি চক্র। খবর পেয়ে ওই এলাকা পরিদর্শনে যান ইউএনও। পরে বুধবার রাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে মা ও ছেলেকে হাজির করলে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান জানান, তাদের পূর্ব পুরুষ রোহিঙ্গা নাগরিক। কয়েক বছর ধরে তারা পটিয়ায় এসে জায়গা ক্রয় করে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র বানিয়ে নাগরিক হয়। তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় উপদ্রব সৃষ্টি ও সাধারণ মানুষের মাঝে শঙ্কা তৈরির অভিযোগ আনা হয়েছে। পরে মা ও ছেলেকে ১৮৬০ সালের ২৯১ ধারায় গণ উপদ্রব আইনে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়ে। সেই সাথে রোহিঙ্গাদের ভোটার আইডি কার্ড পেতে সহযোগিতা প্রদানকারী হিসাবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে তদন্ত শুরু করা হবে।

জয়নিউজ/কাউছার/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...